তাহাদের মাঝে তাঁরাদের খুঁজি!

তাঁরা হাত বাড়িয়ে দেয় আর বন্ধুর পথ গুলি করে দেয় মসৃণ

আমি সবসময় চেষ্টা করি আমার থেকে ভালো অবস্থানে থাকা মানুষদের সান্যিধ্যে থাকতে, আসতে। ভালো অবস্থানটি হতে পারে সামাজিকভাবে, হতে পারে অর্থনৈতিকভাবে, হতে পারে বুদ্ধিবৃত্তিকভাবে, হতে পারে চারিত্রিকভাবে। আমি যাদের সান্যিধ্যে আসতে চাই তারাও চেষ্টা করেন তাদের থেকে ভালো অবস্থানে থাকা মানুষদের সান্যিধ্য পাবার।

আর এ কারণে তারা সর্বদা চেষ্টা করেন তাদের সময় এবং এফোর্ট যথাযথভাবে ব্যবহারের। নিচের অবস্থানে থাকায় “যথাযথ ব্যবহারের” ফিল্টার পেরিয়ে বেশিরভাগ সময়ই উপরে উঠা আর সম্ভবপর হয়ে উঠেনা। উপর হতে হাত বাড়িয়ে উদারতা দেখানোর অভিপ্রায় সবাই রাখেন না। যা খুবই স্বাভাবিক এবং হয়তো আমিও তাদের অবস্থানে থাকলে তাই করতাম। নিজেকে না গুছিয়ে অন্যকে গুছিয়ে দেয়ার মত উদারতা দেখানোর দুঃসাহস সবাই করতে পারে না।

কিন্তু কেউ না কেউ থাকেই, কেউ না কেউ আসেই সে দুঃসাহস দেখাতে। তাঁরা নিজেদের পাশাপাশি অন্যকেও এগিয়ে নিয়ে যান সমান তালে। আর কেউ কেউ আসেন এঞ্জেল হয়ে, তাঁরা হাত বাড়িয়ে দেয় আর বন্ধুর পথ গুলি করে দেয় মসৃণ।

উপরের মানুষগুলির ব্যস্ততা হয়তো আমাকে আহত করবে। তাদের এড়িয়ে চলা নিশ্চিতভাবে আমাকে জানিয়ে দিবে আমার অবস্থান। এমনটাই তো হবার কথা। নিজের বর্তমান আর অবস্থান বুঝতে না পারলে ভবিষ্যৎ সাজাবো কি করে আর অবস্থানের পরিবর্তনই বা আসবে কি করে!

Photo by Anna Sullivan on Unsplash

— ধন্যবাদ 🙂

আমরা সবাই প্রজা

আমরা সবাই প্রজা আমাদের এই রাজার রাজত্বে
নইলো মোরা রাজার নৌকায় চড়বো কি শর্তে
আমরা সবাই প্রজা!

আমরা মিষ্টি কথায় ভুলি, আমরা দুষ্ট কথায় চলি
আমরা তাদের মাথায় তুলে সুখের নৃত্য করি
আমরা সবাই প্রজা!

আমরা তো বোকা খাই প্রতি পদে ধোঁকা
উন্নয়নের জোয়ারে ডুবে মরে আছি খাঁ খাঁ
আমরা সবাই প্রজা!

আছে দরবেশ বাবা, আছে চাটুকারের থাবা
জননী বাংলা নিঃসন্তান, মোরা ধর্ষিত জনতা!
আমরা সবাই প্রজা!

-_-

আমি কিভাবে শিখব? পর্ব: ইউটিউব

ধরুন আপনি নতুন JavaScript কিংবা React কিংবা আমাদের সবার প্রিয় WordPress শিখছেন। এই তিনটিই কিন্তু বেশ পুরোনো। অনেক দিন ধরে মার্কেটে থাকায় এবং জনপ্রিয়তার কারণে এসবের উপর অনেক বই, আর্টিকেল লেখা হয়েছে এবং অনেক ভিডিও টিউটোরিয়ালও বানানো হয়েছে। এরকম জনপ্রিয় এবং অনেক দিন ধরে চলা কোন একটা টুলস কিংবা টেকনলজি সম্পর্কে কিভাবে আপনি খুব দ্রুত আইডিয়া বা ধারণা নিবেন কিংবা সাধারণ বিষয়গুলি শিখে ফেলবেন?

আপনি কি ফেসবুকে সেই টুলস বা টেকনলজি সম্পর্কিত গ্রুপে প্রশ্ন করবেন, নাকি আপনার পরিচিত কাউকে গিয়ে জিজ্ঞেস করবেন, নাকি বসে বসে অপেক্ষা করবেন কেউ এসে বিষয়গুলি আপনার মাথায় ঠুকিয়ে দিয়ে যাবে? আপনি কি করবেন?

আমার সাজেশন হবে আপনি ইউটিউবে সেই টেকনলজি বা টুলস সম্পর্কিত ভিডিও দেখুন। আরও ভালো হয়আপনার আগ্রহের বিষয় সম্পর্কিত ভালো কিছু ইউটিউব চ্যানেল যুক্ত হলে। এরপর টপাটপ কিছু ভিডিও দেখে ফেলুন এবং দ্রুত আইডিয়া নিন! আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে এতো কিছু থাকতে কেন ইউটিউবে ভিডিও দেখতে বলল! উত্তর হলো, ভিডিও গুলিতে সাধারণত অনেক ভিজুয়াল বিষয় থাকে, অনেক লাইভ কোডিং লাইভ রেজাল্ট দেখার সুযোগ থাকে। আর আমাদের মস্তিস্ক ভিজুয়াল বিষয়গুলি অনেক দ্রুত ক্যাপচার করতে পারে এবং এর ফলে আমরা দ্রুত বুঝতে ও শিখতে পারি।

এই কৌশলটি শুধুমাত্র কোন বিষয়ে দ্রুত ধারনা নেবার জন্য এবং আমি এভাবেই শিখি 🙂