Xoom a PayPal Service in Bangladesh

সহজে পেপাল থেকে পেমেন্ট বাংলাদেশে!

বাংলাদেশে বসে ৫৬টি ব্যাংকে পেপাল থেকে জুমের মাধ্যমে ব্যাংক ডিপোজটে পেমেন্টে নিতে পারবেন মাত্র ১০ মিনিটেরও কম সময়ে!

আপডেটেড – শনিবার, ৪ জুলাই ২০২০

অনেকখানি ভনিতা

শুরুতে অনেক অল্প প্রয়োজনীয় কথা বলব তাই বেশি কথা এড়িয়ে সরাসরি কাজের কথায় যেতে ক্লিক করুন –

সরাসরি ফ্রিল্যান্স ক্লায়েন্টের সাথে কাজ করতে গিয়ে প্রথমেই যে সমস্যাটায় পড়েছি তা হল পেমেন্ট কিভাবে নিব? আমি জানি এমনটা এ দেশের বেশিরভাগ ফ্রিল্যান্সাররাই উপলব্ধি করে। আরও বেশি উপলব্ধি করে পেমেন্ট দিতে গিয়ে। আর একারণেই আমরা অনেক দিন ধরেই দাবি জানিয়ে আসছি পেপালের। কিন্তু পেপাল সেই প্রগৈতিহাসিক যুগ থেকে মুলা হয়েই ঝুলে আছে! তবে আমরা কিন্তু মুলার আশায় বসে নেই। ঘরে ঘরে ফ্রিল্যান্সার বানানোর উদ্যোগ শুরু হবার পূর্বেও যেমন আমরা নিজ নিজ উদ্যোগে অথবা কমিউনিউটি উদ্যোগে নানান পন্থা বের করে নিয়েছি স্কিল ডেভেলপমেন্টের জন্য, ফ্রিল্যান্সিংয়ের এক্সপেরিয়েন্স শেয়ার করার জন্য, পেমেন্টের ক্ষেত্রেও আমরা সেভাবেই এগিয়েছি। যে যেভাবে সম্ভব বিভিন্ন পন্থা বের করে নিয়েছি ক্লায়েন্টের ওয়েলেট থেকে অর্থ নিজের ওয়ালেটে নিয়ে আসার। আর এই ক্ষেত্রে আমার মত অনেকের ভরসার জায়গাটা ধরে রেখেছে পেওনিয়ার। আমি অবশ্য পেওনিয়ারের কার্ডলেস* একাউন্ট চালাই!

কিন্তু, আমার এক্সপেরিয়েন্স থেকে দেখেছি বাইরের বেশিরভাগ ক্লায়েন্টের প্রেফারেন্স থাকে পেপাল। অনেকের ক্ষেত্রে আবার পেপালই একমাত্র! এসব ক্ষেত্রে দেখা যায় কাজ করলেও পেমেন্ট পেতে কিছুটা দেরি হয়ে যায়। এই যেমন রিসেন্টলি আমার এক ক্লায়েন্ট পেপালে পেমেন্ট করবে কিন্তু আমি বললাম পেওনিয়ারে পেমেন্ট করতে। আর একারণেই যে পেমেন্ট একটা সিঙ্গেল ট্রানজেকশনেই হয়ে যেতে সেটা ৩টা ট্রানজেকশনেও হচ্ছেনা! এটা শুধুমাত্র আমার একার একটা ক্লায়েন্টের সাথে এক্সপেরিয়েন্স। আপনারা যারা ফ্রিল্যান্সিং করছেন নিয়মিত এবং আমারও বহুবছর পূর্ব থেকে তাদের তো আরও নানান রকমের অভিজ্ঞতা আছে শুধুমাত্র পেমেন্টের এরকম ইস্যু নিয়ে!

যাক ফাইনালি পেপাল থেকে শুধুমাত্র পেমেন্ট নেয়ার জন্য চমৎকার একটা উপায় পেয়েছি। যা এত দ্রুত কাজ করেছে, যে আমি কল্পনাও করতে পারিনি! আর আমার সেই চমৎকার উপায়টা আসলে আর কিছুই না, আমাদের সেই প্রগৈতিহাসিক মুলার ছোট ভাই Xoom! হুম, সত্যিই এটা পেমেন্ট নেয়ার ক্ষেত্রে দারুণ কাজ করে! চলুন তাহলে এবার বিস্তারিত জেনে নেই।

যেসব তথ্য প্রয়োজন

জুমে দুইভাবে ট্রানজেকশন করা যায়। একটি হল ব্যাংক ডিপোজিট আরেকটি ক্যাশ পিকআপ। এখানে আমি শুধুমাত্র ব্যাংক ডিপোজিটের ডিটেইলস নিয়ে আলোচনা করব কারণ এ ব্যাপারেই আমার এক্সপেরিয়েন্স আছে। এবং কোন ব্যাংক গুলি ক্যাশ পিকআপ সাপোর্ট করে শুধুমাত্র তার লিস্ট দিব। পেমেন্ট নেয়ার ক্ষেত্রে ক্লায়েন্টকে আপনার বেশ কিছু ইনফরমেশন দিতে হবে। যা প্রয়োজন হবে ক্লায়েন্ট যখন জুম ব্যবহার করে আপনার পেমেন্টটা প্রসেস করবে। তাই চেষ্টা করবেন সঠিক তথ্য দিতে যেন আপনার ব্যাংকে দেয়া তথ্যের সাথে মিলে যায়। কোন তথ্যগুলি অবশ্যই দিতে হবে আপনাদের সুবিধার জন্য তার একটি স্ক্রিনশট নিচের গ্যালারিতে দেয়া আছে। এবং পেমেন্ট নেয়ার জন্য আপনার কোন জুম একাউন্টের প্রয়োজন পড়বে না এবং আপনাকেও জুম একাউন্ট ওপেন করতে হবে না। 💡 ভবিষ্যতের জন্য এসব তথ্য এক করে নিরাপদ কোথাও সেইভ করে রাখতে পারেন পুনরায় ব্যবহারের জন্য।

Bank Name: আপনার যে ব্যাংকে জুমের মাধ্যমে পেমেন্ট নিয়ে আসতে চান সেই ব্যাংকের নাম। নিচে বাংলাদেশের যেসব ব্যাংক জুমের ব্যাংক ডিপোজিট সাপোর্ট করে তার লিস্ট আছে।
Branch Routing Number: আপনার একাউন্টটি ব্যাংকের যে ব্রাঞ্চে সেই ব্রাঞ্চের রাউটিং নাম্বার। রাউটিং নাম্বার আপনি ব্যাংকের ওয়েবসাইট কিংবা https://www.banksbd.org/ এখান থেকেও খুঁজে পেতে পারেন।
Account Number: আপনার ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার। ঝামেলা এড়াতে পূর্ণ একাউন্ট নাম্বারটি দিবেন। যেমন ডাচ বাংলার একাউন্ট ১৩ সংখ্যার এবং ফরম্যাটটা হল ৩ সংখ্যা ৩ সংখ্যা এবং ৭ সংখ্যা। এই ৭ সংখ্যার জায়গায় অনেকের ৪টি অনেকের ৫টি আবার অনেকের ৭টিও থাকে। এসব ক্ষেত্রে ব্যাংকের নিয়ম অনুযায়ী ফুল ফরম্যাটের একাউন্ট নম্বর দিবেন।
First Name: আপনার ফার্স্ট নেম
Last Name: আপনার লাস্ট নেম
Address: আপনার এনআইডি এড্রেস কিংবা ব্যাংকে যে এড্রেস দিয়ে একাউন্ট ওপেন করেছিলেন।
District: এনআইডি কিংবা ব্যাংকে দেয়া জেলা
Division: এনআইডি কিংবা ব্যাংকে দেয়া বিভাগ
Postal Code: এনআইডি কিংবা ব্যাংকে দেয়া পোস্ট কোড
Phone: আপনার ফোন নাম্বার
Email: আপনার ইমেইল। ক্লায়েন্ট পেমেন্ট করলে আপনাকে পেমেন্ট ডিটেইলস ইমেইল করে দিবে ট্রানজেকশন নাম্বার সহ। যা দিয়ে আপনি পরে ট্রানজেকশন ট্রাক করতে পারবেন।

আরেকটুখানি তথ্য

ট্রানজেকশন চার্জঃ জুম ১০০০ ডলার পর্যন্ত ৪.৯৯ ডলার ফ্লাট চার্জ কাটে এবং ১০০০ ডলারের উপড়ে ট্রানজেকশন চার্জ ফ্রি।
কারেন্সি সাপোর্টঃ জুমের সাপোর্ট ১৬০ দেশে আছে এবং একেক দেশে এক বা একাধিক কারেন্সির সাপোর্ট আছে। এটা নিয়ে আপনার চিন্তিত হবার কিছু নেই। আপনার ক্লায়েন্ট যে দেশে আছেন এবং সেই দেশে ডলারের সাপোর্ট না থাকলে যে কারেন্সির সাপোর্ট আছে ডলার থেকে সেই কারেন্সিতে কনভার্ট করে আপনি পেমেন্ট নিতে পারে।
কনভার্শন রেটঃ এটি আপনি লাইভ দেখতে পারবেন এই লিংক থেকে https://www.xoom.com/bangladesh/send-money
লিমিটঃ এটিও আপনি কনভার্সন রেট চেক করার লিংক থেকে চেক করে নিতে পারবেন। ইচ্ছেমত ইনপুট দিতে থাকুন সিস্টেম লিমিট বলে দিবে! 😆
সময়ঃ আমার ক্লায়েন্ট ইতালি থেকে পেমেন্ট করেছিল এবং ১০ মিনিটও লাগেনি! 😲 আমার কাছে অবিশ্বাস্য রকমের দ্রুত মনে হয়েছে, সত্যিই! 😃

গ্যালারিতে ক্লায়েন্ট প্যানেলের কিছু ছবি দিলাম যা দেখলে আপনাদের আরও স্পষ্ট ধারণা আসবে –

ব্যাংক ডিপোজিট যেসব ব্যাংক সাপোর্ট করেঃ

  1. AB Bank Ltd
  2. Agrani Bank Ltd
  3. Al-Arafah Islami Bank Ltd
  4. Bangladesh Bank
  5. Bangladesh Commerce Bank Ltd
  6. Bangladesh Development Bank Ltd
  7. Bangladesh Krishi Bank
  8. Bangladesh Samabaya Bank Ltd
  9. Bank Al-Falah Ltd
  10. Bank Asia Ltd
  11. Basic Bank Ltd
  12. BRAC Bank Ltd
  13. Citi Bank N A
  14. Commercial Bank Of Ceylon
  15. Dhaka Bank Ltd
  16. Dutch-Bangla Bank Ltd
  17. Eastern Bank Ltd
  18. Exim Bank Ltd
  19. First Security Islami Bank Ltd
  20. Habib Bank Ltd
  21. Hong Kong & Shanghai Banking Corp
  22. ICB Islamic Bank Ltd
  23. IFIC Bank Ltd
  24. Jamuna Bank Ltd
  25. Janata Bank Ltd
  26. Meghna Bank Limited
  27. Mercantile Bank Ltd
  28. Midland Bank Limited
  29. Modhumoti Bank Limited
  30. Mutual Trust Bank Ltd
  31. National Bank Ltd
  32. National Bank Of Pakistan
  33. National Credit & Commerce Bank Ltd
  34. NRB Bank Limited
  35. NRB Commercial Bank Ltd
  36. NRB Global Bank Limited
  37. One Bank Ltd
  38. Prime Bank Ltd
  39. Pubali Bank Ltd
  40. Rajshahi Krishi Unnayan Bank
  41. Rupali Bank Ltd
  42. SBAC Bank Limited
  43. Shahjalal Islami Bank Ltd
  44. SIBL (Social Islami Bank Ltd)
  45. Sonali Bank Ltd
  46. Southeast Bank Ltd
  47. Standard Bank Ltd
  48. Standard Chartered Bank
  49. The City Bank Ltd
  50. The Farmers Bank Limited
  51. The Premier Bank Ltd
  52. Trust Bank Ltd
  53. Union Bank Ltd
  54. United Commercial Bank Ltd
  55. Uttara Bank Ltd
  56. Woori Bank

ক্যাশ পিকআপ যেসব ব্যাংক সাপোর্ট করেঃ

  1. Agrani Bank Limited
  2. Bangladesh Krishi Bank
  3. Bank Asia Limited
  4. Brac Bank Limited
  5. Dutch Bangla Bank Limited
  6. Janata Bank Bangladesh Limited
  7. Mercantile Bank Limited
  8. National Bank Limited
  9. Premier Bank Limited
  10. Pubali Bank Limited
  11. Rupali Bank
  12. Social Islami Bank Limited
  13. Sonali Bank Limited
  14. Uttara Bank Limited

এতদূর পর্যন্ত এসে আপনি যদি উপকৃত হয়ে থাকেন তবে অবশ্যই অন্যদের সাথে শেয়ার করুন। তাদেরকেও সুযোগ দিন ক্লায়েন্টের ওয়ালেট দ্রুত ফাঁকা করার (অবশ্যই ন্যায়ভাবে ফাঁকা করবেন এবং উৎসাহ দিবেন ন্যায়ভাবেই ফাঁকা করার 😂)।

*আর হ্যাঁ আমি কার্ডলেস পেওনিয়ার ব্যবহার করি বলতে আমার শুধুমাত্র পেওনিয়ার একাউন্ট আছে কিন্তু কোন কার্ড নেই। এভাবে ব্যবহারের বড় সুবিধা হল কার্ডের জন্য আমাকে আলাদা চার্জ দিতে হয়না। আর বড় অসুবিধা হল আমি অনলাইনে কোন কেনাকাটা করতে পারিনা! 😛 আপনিও চাইলে এই লিংকে ক্লিক করে পেওনিয়ার একাউন্ট ওপেন করতে পারেন (এটি রেফারেল লিংক আর রেফারেল থেকে একাউন্ট করলে আপনি পাবেন ২৫ ডলার রিওয়ার্ড। এজন্য আপনাকে একাউন্ট ব্যবহার করতে হবে, ফেলে রাখলে রিওয়ার্ড পাবেন না!) কার্ডের কোন ঝামেলা ছাড়াই। আর যদি কোন পেমেন্ট না করতে হয় তবে নিশ্চিন্তে কার্ডলেস থাকতে পারেন আজীবন! কোন এক্সট্রা চার্জ লাগবে না। এমনকি পেওনিয়ারের রিসেন্ট কার্ড ইস্যুর মত বিশাল ঘটনা ঘটলেও আপনি টেনশন ফ্রি!

— ধন্যবাদ 😀

3 Comments

  1. Make a video bro

  2. বিস্তারিত বলার জন্য ধন্যবাদ ভাই <3

    আপনার পোস্ট দেখে ভভাবছিলাম জুম ট্রাই করব কিন্ত Islami bank bangladesh লিস্টে নাই 🙁

    • আপনি সিটি ব্যাংকে একটা একাউন্ট খুলে ফেলেন। সিটির অন্যান্য সার্ভিস গুলিও দারুণ

Leave a Reply

%d bloggers like this: